Math

ল.সা.গু এর নিয়ম

ল.সা.গু এর নিয়ম। লঘিষ্ঠ সাধারণ গুণিতক, সংক্ষেপে ল.সা.গু। এটা প্রায় সকল শ্রেণীর শিক্ষার্থী এবং চাকুরি প্রত্যাশীদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ গনিতাংশ। আজকে আমি লসাগু সম্পর্কে ধাপে ধাপে আলোচনা করব যাতে সবাই এই বিষয়ে স্পষ্ট ধারণা পান।

তাহলে চলুন, আলোচনা শুরু করা যাক।

প্রথমে লসাগু শব্দের বিশ্লেষণ করি।
ল= লঘিষ্ঠ, অর্থ সব চেয়ে ছোট বা কম এখানে অর্থ হবে সবচেয়ে ছোট সংখ্যা।

সা=সাধারণ, অর্থ কমন। এখানে সাধারণ বা কমন বলতে এমন সংখ্যা যা আলোচ্য সকল সংখ্যার মধ্যেই আছে।

গু= গুনিতক, যে কোন একটা সংখ্যাকে কোন পূর্ণ সংখ্যা দ্বারা গুন করলে যত সংখ্যা পাওয়া যাবে সব গুলোই সেই সংখ্যার গুণিতক। উদাহরণ দিলে আরো স্পষ্ট হবে।

12 এর গুণিতক সমূহ
12×1=12
12×2=24
12×3=36
12×4=48
……….
……….
12×n=12n

সুতরাং 12 এর গুণিতক গুলো হচ্ছে 12, 24, 36, 48…..প্রভৃতি।

আবার কোন সংখ্যার গুণিতক বলতে ঐ সকল সংখ্যা গুলোকে বুঝায় যে সকল সংখ্যা কে ঐ সংখ্যা দ্বারা ভাগ করলে কোন ভাগ শেষ থাকে না।

যেমন 12 কে 12 দ্বারা ভাগ করলে কোন ভাগশেষ থাকে না। সুতরাং 12 এর একটি গুণিতক হচ্ছে 12। আবার 24 কে 12 দ্বারা ভাগ করলেও কোন ভাগশেষ থাকে না। সুতরাং 12 এর আরেকটি গুণিতক হচ্ছে 24। এভাবে, 12 দ্বারা, 36, 48, 60 প্রভৃতি সংখ্যাগুলোকে ভাগ করলে কোন ভাগশেষ থাকে না। সুতরাং 36, 48, 60 ও 12 এর গুণিতক।

তাহলে 12 এর লঘিষ্ঠ গুণিতক কোনটি?

এখানে 12 এর যত গুলো গুণিতক পেলাম তাদের মধ্যে 12 ই হচ্ছে সবচেয়ে ছোট। সুতরাং 12 এর লঘিষ্ঠ গুণিতক হচ্ছে 12।

এখন আরেকটি যে কোন সংখ্যার গুণিতক বের করি। সংখ্যাটি ধরে নিই 18।

তাহলে 18 এর গুণিতক গুলো হচ্ছে

18×1=18
18×2=36
18×3=54
……….
……..
এভাবে অনেক গুলো গুণিতক পাওয়া যাবে।

এখন যদি আমরা 12 ও 18 এর লসাগু বের করতে চাই তাহলে কি ভাবে বের করব?

এখানে 12 ও 18 এর লসাগু মানে হচ্ছে 12 ও 18 এর গুণিতক গুলোর মধ্য থেকে লঘিষ্ঠ সাধারণ গুণিতক । অর্থাত ছোট কমন সংখ্যা।

12 এর গুণিতক সমূহ
12, 24, 36, 48, 60, 72….

18 এর গুণিতক সমূহ
18, 36, 54, 72…….

উপরের দুইটি সংখ্যার গুণিতক গুলোর মধ্যে সাধারণ বা কমন গুণিতক আছে দুইটি (আরও গুণিতক বের করলে আরও সাধারণ গুণিতক পাওয়া যাব)
প্রথমে দুই সংখ্যার গুণিতক এর মধ্যেই 36 আছে এবং পরে 72 আছে। এখন যেহেতু আমাদের লঘিষ্ঠ বা ছোট সংখ্যাটি নিতে হবে তাই নির্ণেয় লসাগু হবে 36 ।

অর্থাৎ 12 ও 18 এর লঘিষ্ঠ সাধারণ গুণিতক হচ্ছে 36।

এর অর্থ হচ্ছে কোন সংখ্যাসমৃহের লসাগু কে ঐ সকল সংখ্যা দিয়ে ভাগ করলে কোন ভাগশেষ থাকবে না।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published.